Logo

 

দিনপুঞ্জি

সেপ্টেম্বর ২০২১
সোমমঙ্গলবুধবৃহ:শুক্রশনিরবি
 
 
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০
 
 
 
ঘাসফুল
Logo

ঘাসফুল সম্পর্কে

এনজিও বিবরণ (প্রথম অংশ) এখানে হবে
নানা রকম প্রতিকুল ও অনাদৃত পরিবেশে শোভাবর্ধন করে যে ফুল নিজের অবস্থান জানান দেয় তার নাম: ঘাসফুল। সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত শামসুন্নাহার রহমান পরাণ অবহেলিত ও দলিত জনগোষ্ঠীর প্রতীক হিসেবে সংস্থার নামকরণ করেন “ঘাসফুল”। মহান মুক্তিযুদ্ধের পরবর্তী সংকটে ত্রাণ কার্যক্রম দিয়ে শুরু হয় সংস্থার যাত্রা। গত ৪৭ বছর ধরে সংস্থাটি ঘাসফুলের মতো সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠী, বিশেষত নারী, শিশু-কিশোরদের মানব মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় নানামুখি উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।যার প্রধান লক্ষ্য “সচেতন, স্বর্নিভর বাংলাদেশ যেখানে সকলের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত হবে। ক্ষুদ্র অর্থায়ন ও নিরাপত্তা কার্যক্রমে ঘাসফুল তিনটি ভিন্নধারাকে অগ্রাধিকার দেয়। কনভেনশনাল মাইক্রোফিন্যান্স- গ্রামীণ ও নগর অর্থনীতিতে উন্নয়নসাধন, গ্রীন মাইক্রোফিন্যান্স - কৃষি ও পরিবেশবান্ধব প্রযুক্তির ব্যবহার ও উন্নয়ন, ঝুকিঁনিরসন ও আর্থিক অর্ন্তভুক্তিকরণ কার্যক্রম। সংস্থার ক্ষুদ্রউদ্যোগ ঋণ, সম্পদ সৃষ্টি ঋণ, কৃষিঋণ, জীবনমান উন্নয়ন ঋণের আওতাভুক্ত সদস্যরা ঋণের যথাযথ ব্যবহার ও প্রশিক্ষণ গ্রহণের মাধ্যমে নিজেদেরকে সফল ক্ষুদ্রউদ্যোক্তা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করছে।এছাড়াও ঘাসফুল কর্ম-এলাকার সুবিধাবঞ্চিত বিশেষজনগোষ্ঠী; ভিক্ষুক, প্রতিবন্ধী, প্রবীণ, হরিজন, সাঁওতালসম্প্রদায়ের জন্য বিশেষ কর্মসূচি পরিচালনাকরছে। দীর্ঘদিন ধরে ঘাসফুল ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রম থেকে উদ্বুত আয় দিয়ে বিভিন্ন ধরণের সামাজিকনিরাপত্তা ও উন্নয়নমুলক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।ঘাসফুল নিজস্ব অর্থায়নে মাদারবাড়ি সেবক কলোনীতে ‘শিশুবিকাশ কেন্দ্র’, স্থায়ীক্লিনিক ও বিভিন্ন স্থানে স্যাটেলাইট ক্লিনিকেরমাধ্যমে চট্টগ্রামে বিভিন্ন স্থানে স্বাস্থ্যসেবা, গার্মেন্টস কর্মীদের সচেতনতা ও স্বাস্থ্যসেবা প্রদান এবং মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানদের উন্নত শিক্ষা নিশ্চিত করণে ‘ঘাসফুল পরাণ রহমান স্কুল’ পরিচালনা করছে।ঘাসফুল নিজস্ব অর্থায়নে দুর্যোগ মোকাবেলায় কর্ম-এলাকায় এযধংযভঁষ জবংপঁব ঞবধস (এজঞ)এবং সুশাসন, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে একাধিক কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। ইতোমধ্যে ঘাসফুলের উদ্যোগে বহুভিক্ষুককে স্থায়ীভাবে পুর্নবাসন, প্রবীণকে নিয়মিত বয়স্কভাতা প্রদান করা হয়। এছাড়াও প্রবীণদের বিশেষ সহায়তা, সম্মাননা প্রদান কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।চট্টগ্রাম ও নওগাঁ জেলার গ্রামের দুস্থ রোগীকে বিনামূল্যে চোখের ছানি অপারেশন, চশমা বিতরণ করা হচ্ছে।ঘাসফুল এর উদ্যোগে সাড়ে তিন হাজার কর্মজীবী শিশু, স্কুল ছাত্রছাত্রীদের স্কুলব্যাকিং এর আওতায়আনা হয়েছে। শিক্ষাখাতেঘাসফুলচট্টগ্রামেরনগর ও গ্রামেশ্রমজীবীশিশু ও অন্যান্য ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষাসেবায়২১০টি স্কুল / কেন্দ্র পরিচালনাকরছে। আমরামনেকরিবাংলাদেশে কর্মরতঅন্যান্য বেসরকারিউন্নয়নসংস্থাসমূহের মধ্যে ঘাসফুলেরবিশেষত্ব বিবেচনায়তিনটিবিষয়কে গুরুত্ব দেয়াযায়। প্রথমত: আশির দশকেঘাসফুলই দেশে প্রথমহরিজনসম্প্রদায়ের (সুইপার) শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অর্থনৈতিকউন্নয়নেকাজশুরুকরে। দ্বিতীয়ত ; ঘাসফুলপ্রথমচট্টগ্রামে ১৯৮২ সালে বে-অব-বেঙ্গল প্রজেক্টের মাধ্যমে উপকুলীয় জেলেদের উন্নয়নেকাজশুরুকরে। তৃতীয়ত ; ১৯৯০ সালেঘাসফুল দেশে প্রথম পোষাকশ্রমিকদের স্বাস্থ্যশিক্ষা ও পেশাগতউন্নয়নেবইপ্রণয়ন ও প্রশিক্ষণেরকার্যক্রম শুরুকরে। চতুর্থত : ঘাসফুল দাতাসংস্থাদেরউপরনির্ভরনাকরেনিজস্ব অর্থায়নে দীর্ঘমেয়াদি বহুউন্নয়নমুলককার্যক্রম পরিচালনাকরেআসছে। ঘাসফুলপিকেএসএফেরসহায়তায়সমৃদ্ধি কর্মসূচিরআওতায়হাটহাজারীউপজেলার০২টি ইউনিয়নেঅবকাঠামোনির্মানসহকমিউনিটিরচাহিদা মোতাবেককালভার্ট, প্রাচীর দেয়ালনির্মাণ, দরিদ্র পরিবারসমূহের সম্পদ ও সক্ষমতাবৃদ্ধির লক্ষ্যে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যুবপ্রশিক্ষণ, কর্মসংস্থানসৃষ্টিসহনানাকার্যক্রম পরিচালনাকরছে। ঘাসফুল ক্ষুদ্রঋণেরপাশাপাশিবায়োগ্যাস, জৈবসারউৎপাদন, উন্নতচুলা, সৌরবিদ্যুৎসহবাড়ির আঙ্গিনায় সবজিচাষেব্যাপক অর্থায়ন ও সহায়তাকরছে। সংস্থা বৈদেশিক রেমিটেন্স সেবা, ক্ষুদ্রঋণেরঝুকিনিরসনে সেবাপ্রদানেরপাশাপাশিগবাদি পশুপালনেঝুঁকিনিরসন, নিরাপদ সবজি ও মশল্লাজাতীয়ফসলেরবাজারউন্নয়নেরমাধ্যমে কৃষকেরআয়বৃদ্ধিকরণপ্রকল্প,কৃষিখাতে উদ্যোক্তা তৈরী, বিষমুক্ত চাষাবাদ, নারী ও শিশুনির্যাতনএবংবাল্যবিয়ে ও শিশুশ্রমপ্রতিরোধ, জলবায়ুপরিবর্তন ও পরিবেশউন্নয়নসহনানানবিষয়েউন্নয়নকার্যক্রমের মাধ্যমে ইতিবাচকঅবদানরাখছে।সংস্থারসকলকার্যক্রমে ডিজিটালাইজেশননিশ্চিতকরাসহক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রমে গ্রাহকপর্যায়েক্যাশলেস ও পেপারলেস লেন-দেন প্রক্রিয়াশুরুকরাহয়েছে। ঘাসফুলইতোপূর্বে রাষ্ট্রপতিজনসংখ্যাপুরস্কারসহজাতীয়পর্যায়ে শ্রেষ্ঠপ্রতিষ্ঠান, শ্রেষ্ঠকর্মী পুরস্কার অর্জনকরে। সংস্থারহিসাবব্যবস্থাপনাএবংক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতানিশ্চিতেরলক্ষ্যে স্বচ্ছতার জন্য আইসিএবিহতে ঘধঃরড়হধষ ধধিৎফ ভড়ৎ ইবংঃ চঁনষরংযবফঅপপড়ঁহঃং ধহফ জবঢ়ড়ৎঃং ২০১০ এবং ২০১৫ সালেসার্টিফিকেটঅব মেরিটপুরস্কার লাভকরে । যুদ্ধ পরবর্তী যেকোন দূর্যোগসহ ১৯৮৮ সালেরবন্যা, ১৯৯১ সালেরঘূর্ণিঝড়, ২০০৬ সালেচট্টগ্রামেরপাহাড়ধসে দূর্গত/ক্ষত-বিক্ষতএবং ২০১৬ সালেভয়াবহঘুর্ণিঝড় রোয়ানু’রআঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষেরপাশেছিলঘাসফুল। ২০১৭ সালেঘূর্ণিঝড় মোরারসময়উপকূলীয় পতেঙ্গা এলাকায়মাইকিং ও স্থানীয়জনগণকেনিরাপদ স্থানেসরিয়ে নেয়া।২০১৭ সালেচট্টগ্রামেরহাটহাজারীরমিষ্টিমরিচ এর জন্য পিকেএসএফহতে সম্ভাবনাময়ীপণ্য এর জন্য পুরস্কার লাভকরে।২০১৮ সালেনওগাঁ জেলায় ৫০০জন দুঃস্থ ও শীতার্থ মানুষেরমাঝে কম্বল বিতরনকরাহয়।২০১৮ সালেচট্টগ্রামেরহাটহাজারিউপজেলায়অতিবৃষ্টিতেসৃষ্টিবন্যায়ক্ষতিগ্রস্থ ২০০ পরিবারেত্রাণবিতরণকরাহয়।২০১৯ সালেনওগাঁ জেলারনিয়ামতপুরউপজেলার দুইটিইউনিয়নেপ্রায় ৫৫০জন দুঃস্ত ও শীতার্থ মানুষেরমাঝেশীতবস্ত্র বিতরণকরাহয়। তাছাড়া নেপালেভয়াবহভূমিকম্পেওঘাসফুলসাহায্যেরহাতবাড়ায়। বর্তমানে সংস্থায় দেশীয়বিশ্ববিদ্যালয়েরপাশাপাশিপ্যানসেলভেনিয়া, ব্রাসেলসসহবিভিন্নবিদেশী স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়েরছাত্ররাইন্টার্নশীপ ও অভিজ্ঞতাঅর্জনকরতেনিয়মিতঘাসফুলেআসছে। সংস্থার দক্ষ মানবসম্পদ ও দৃশ্যমানঅজর্নসমূহ সংস্থাকেতার লক্ষ্য অর্জনে অগ্রগামীকরছে।

 

NGO সমূহ