Logo

 

দিনপুঞ্জি

সেপ্টেম্বর ২০২১
সোমমঙ্গলবুধবৃহ:শুক্রশনিরবি
 
 
১০
১১
১২
১৩
১৪
১৫
১৬
১৭
১৮
১৯
২০
২১
২২
২৩
২৪
২৫
২৬
২৭
২৮
২৯
৩০
 
 
 
প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি
Logo

প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি সম্পর্কে

মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিম অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মানুষের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং এর কর্ম পরিধি ক্রমাগতভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় গড়ে উঠলেও এটির বিস্তৃতি অনেক জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে। উদ্দেশ্য হচ্ছে দরিদ্র, বঞ্চিত, অবহেলিত মানুষের কল্যাণ ও উন্নয়নে কাজ করা। তাদের ভাগ্যোন্নয়নে ও পরিবর্তনে তাদের সাথে এক যোগে কাজ করা। যা একটি স্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংগঠন হিসেবে প্রয়াস মূলত জনগণের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন, জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও আত্মনির্ভরশীলতার লক্ষ্যে বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি সংস্থার সহযোগিতায় নিরন্তর সেবা প্রদান করে আসছে। ১৯৮৮ সালের বন্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় ব্যাপক জান-মালের ক্ষয় ক্ষতি সাধিত হয়। এই দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও অসহায় মানুষের সেবা এবং সাহায্যে এগিয়ে আসে একদল তরুণ ছাত্র। বিভিন্ন সংগঠন ও বিত্তশালী ব্যক্তিদের নিকট থেকে খাদ্য, বস্ত্র , ঔষধ সংগ্রহ করে খুবই নিয়মতান্ত্রিক ভাবে বিতরণ করে আক্রান্ত জনগোষ্ঠীর মাঝে। তৎসময়ে কোন সাংগঠনিক কাঠামো না থাকলেও নিবেদিত তরুণ দলটি দক্ষ সৈনিকের মতো ভূমিকা রেখে সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়। মানবিক তাড়নায় চাহিদাভিত্তিক কর্মসূচি বাস্তবায়নই এই তরুণ ছাত্রদেরকে দরিদ্র, বঞ্চিত, অবহেলিত মানু ষের কল্যাণ ও উন্নয়নে কাজ করার জন্য অনু প্রাণিত করে এবং একটি সাংগঠনিক ভিত্তি স্থাপনের প্রয়োজনীয়তা অনুভূত হতে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় ১৯৯৩ সালের ১৯ ডিসেম্বর প্রয়াস একটি সংগঠন হিসেবে রূপ লাভ করে।


মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিম অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মানুষের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং এর কর্ম পরিধি ক্রমাগতভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় গড়ে উঠলেও এটির বিস্তৃতি অনেক জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে। উদ্দেশ্য হচ্ছে দরিদ্র, বঞ্চিত, অবহেলিত মানুষের কল্যাণ ও উন্নয়নে কাজ করা। তাদের ভাগ্যোন্নয়নে ও পরিবর্তনে তাদের সাথে এক যোগে কাজ করা। যা একটি স্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংগঠন হিসেবে প্রয়াস মূলত জনগণের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন, জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও আত্মনির্ভরশীলতার লক্ষ্যে বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি সংস্থার সহযোগিতায় নিরন্তর সেবা প্রদান করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ১৯৯৩ সালের ১৯ ডিসেম্বর প্রয়াস একটি সংগঠন হিসেবে রূপ লাভ করে এবং ২০০০ সালের ৭ মে সোসাইটিজ রেজিস্ট্রেশন অ্যাক্ট এর অধীনে ‘প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি’ নামে নিবন্ধিত হয়, যার নিবন্ধন নং রাজ এস নং ৪৯/২০০০। এছাড়াও এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর অধীনে নিবন্ধিকরণের প্রয়োজনীয়তা অনুভূত হলে ২০ এপ্রিল ২০০৪ এ (নিবন্ধন নং-১৯২৩) নিবন্ধন করা হয় এবং পরবর্তীতে মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটির অধীনে ১৪ মে ২০০৮ তারিখে নিবন্ধন করা হয় যার সনদ নং ০০৯৭৮-০০৯৮৬-০০২৪৮।


প্রয়াসের লক্ষ্য:
দরিদ্র জনগোষ্ঠিকে একটি বিশেষ সাংগঠনিক কাঠামোর আওতাধীন এনে সঞ্চয় ও ঋণ কর্মসূ চির মাধ্যমে সংগঠনের মধ্যে তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় অর্থনৈতিক কার্যক্রম গড়ে তোলার সুযোগ সৃষ্টি করা এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে দারিদ্র বিমোচনে সহযোগিতা করা।

প্রয়াসের উদ্দেশ্য:
- অভিষ্ট শ্রেণীর সুসংগঠিত ও সচেতন সংগঠন গঠন এবং সংগঠনের নিজস্ব কার্যক্রম পরিচালনায় দক্ষ নেতৃত্ব উন্নয়ন করা।
- পুরুষ ও মহিলা উভয়দেরকে আয়বর্ধক কর্মসূচির আওতায় এনে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে আয় বৃদ্ধি করানো এবং ধীরে ধীরে স্বয়ং সম্পূর্ণতা অর্জনের জন্য সহায়তা প্রদান অব্যহত রাখা।
- বর্ধিত আয় হতে বর্ধিত হারে সঞ্চয় করে নিজস্ব পূঁজি সৃষ্টির মাধ্যমে দরিদ্র শ্রেণীর লোকদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার জন্য সহায়তা প্রদান অব্যহত রাখা।
- আয় বৃদ্ধির মাধ্যমে মহাজনি চড়া সুদে টাকা লগ্নি, ফসল অগ্রীম বিক্রি, জমি-জমা বিক্রি ও বন্ধক প্রথা ইত্যাদি পর্যায়ক্রমে কমানো তথা চূড়ান্তভাবে বন্ধ করতে সহায়তা করা।
- প্রশিক্ষণের মাধ্যমে অভিষ্ট জনগোষ্ঠীকে সচেতন করা এবং যৌথ সিদ্ধান্ত গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করা।
- ঋণ কর্মসূচির মাধ্যমে সংগঠনের সদস্যদের নিজস্ব পরিকল্পনায় প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে ব্যক্তিগত ও দলীয়ভাবে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা।
- অর্থনৈতিক উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্যে অন্যান্য আনুষাঙ্গিক দিকগুলোর উন্নয়ন সাধন করা।
- ঋণ কার্যক্রমে মহিলাদেরকে অগ্রাধিকার দিয়ে তাদেরকে সরাসরি উৎপাদনে সম্পৃক্ত করা ও পরিবারে বাড়তি আয়ের সুযোগ সৃষ্টি করা।
- দরিদ্র এবং বিভিন্ন ধরনের সুবিধা থেকে বঞ্চিত জনগণকে প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোর আওতায় সংঘবদ্ধ করা যেন তারা বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক সুবিধা আদায়ে সক্ষম হয়।
- উদ্যোগী ও কর্মঠ পুরুষ ও মহিলাদেরকে ছোট ছোট প্রকল্পের মাধ্যমে ঋণ প্রদান এবং স্বনিয়োজিত কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা।

প্রয়াসের মূল্যবোধ:
সততাঃ প্রয়াসের দক্ষ কর্মীবাহিনী একই নীতিতে অটল থেকে কথা ও কাজে সততা এবং স্বচ্ছতা বজায় রেখে সংস্থার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য অর্জনের জন্য কাজ করে। আমরা সকলেই একক ও সম্মিলিত কাজের প্রতি দায়িত্বশীল।
সম্মানঃ আমরা, সকল অংশগহ্রণকারী, দাতা সং¯া’, অংশীদার, কর্মী ও লক্ষ্যভুক্ত জনসাধারণের মর্যাদা, সম্ভাবনা এবং অবদানকে স্বীকার ও সম্মান করি।
অঙ্গীকারঃ আমরা বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর কার্যকরী কল্যাণের জন্য অঙ্গীকারাবদ্ধ এবং একাত্ম হয়ে কাজ করি।
সমতাঃ প্রয়াস বিশ্বাস করে পুরুষ-মহিলা, ধনী-গরীব, শিক্ষিত-অশিক্ষিত, প্রতিটি মানুষের সম্মানের সাথে বেঁচে থাকার অধিকার রয়েছে। আমরা এ বিশ্বাসে আস্থাশীল হয়ে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় নিবিড়ভাবে কাজ করি।
উৎকর্ষতাঃ প্রয়াসের প্রতিশ্রুতিবদ্ধ কর্মীগণ নিজেদের শিক্ষা ও দক্ষতার উপর নির্ভর করে ক্রমাগত চ্যালেঞ্জ গ্রহণ এবং শিখন পর্যালোচনার মাধ্যমে চরম উৎকর্ষতা অর্জনের চেষ্টা করি।

প্রয়াসের সহযোগী সংগঠন:
- কমিউনিটি রেডিও-রেডিও মহানন্দা
- প্রায়স ফোক থিয়েটার ইনস্টিটিউট
- প্রয়াস হেলথ কেয়ার

প্রয়াসের সদস্যপদ/সংগঠনভূক্তি:
- বিএনএনআরসি
- সিডিএফ
- এডিএবি

 

NGO সমূহ